সদ্যপ্রাপ্ত
রাজশাহী, সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৯ আশ্বিন ১৪২৫
52 somachar
মঙ্গলবার ● ১৩ মার্চ ২০১৮
প্রথম পাতা » জাতীয় » নেপালে বিমান দুর্ঘটনা: এখনো খোজ মেলেনি রাজশাহীর চার যাত্রীর
প্রথম পাতা » জাতীয় » নেপালে বিমান দুর্ঘটনা: এখনো খোজ মেলেনি রাজশাহীর চার যাত্রীর
১৪৬৩ বার পঠিত
মঙ্গলবার ● ১৩ মার্চ ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

নেপালে বিমান দুর্ঘটনা: এখনো খোজ মেলেনি রাজশাহীর চার যাত্রীর

অনলাইন প্রতিবেদক, রাজশাহী: নজরুল ইসলাম ও আক্তার বেগম স্বামী-স্ত্রী। নজরুল ইসলাম বাংলাদেশ ডেভলপমেন্ট ব্যাংকের উচ্চ কর্মকর্তা ও আক্তার বেগম রাজশাহী সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষিকা। দুই জনেই সম্প্রতি সময়ে এলপিয়ারে গেছেন। এলপিয়ারে যাওয়ার পরে এই প্রথম দুই জনে বিদেশে বেড়াতে গিয়েছিলেন।  কিন্তু বিধি বামে। বিমান দুর্ঘটনার শিকার হন তারা।সোমবার নেপালের কাঠমাণ্ডুতে ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বাংলাদেশের বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়। সেই বিমানের যাত্রী ছিলেন তারা দুই জনও। তাদের কপালে কি ঘটেছে তা সোমবার রাত ১১টা পর্যন্ত জানতে পারেনি তার স্বাজনরা।

এই দম্পতির বাড়ি রাজশাহী মহানগরীর উপশহর এলাকায়। তারা রাজশাহীতে থাকলেও দুই মেয়ে ঢাকায় থাকেন। মোবাইলে তার মেয়ে কাকন জানান, নেপালের কাঠমাণ্ডুতে ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস বাংলার যে বিমানটি দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন তাতে তার বাবা-মা ছিলেন। তবে তাদের শেষ অবস্থা কি তা বলতে এখনো যানতে পারিনি। তবে তারা চেষ্টা করছেন বাবা-মার অবস্থা জানার জন্য। সাধ্যমতো সব জায়গায় যোগাযোগ করা হচ্ছে।

এদিকে, নগরের শিরোইল এলাকার হাসান ইমাম ও তার স্ত্রী বিলকিস আরা দুর্ঘটনা কবলিত বিমানে ছিলেন বলে জানান গেছে। এদের মধ্যে হাসান ইমাম সরকারি কর্মকর্তা ও বিলকিস আরা কলেজের শিক্ষক।

ঢাকা থেকে রওনা হওয়ার সময় বিমানটিতে মোট যাত্রী ছিলেন ৬৭ জন। এছাড়া ক্রু ছিলেন চারজন। যাত্রীদের মধ্যে বাংলাদেশি ছিলেন ৩২ জন। প্রধান বৈমানিক আবিদ সুলতান জীবিত আছেন বলে আগেই জানিয়েছিল ইউএস-বাংলা।

ক্রুদের মধ্যে ফার্স্ট অফিসার পৃথুলা রশিদ ও ক্রু খাজা হোসেনের নাম কাঠমান্ডু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দেওয়া মৃতদের তালিকায় রয়েছে। আরেক ক্রু নাবিলার খবর পাওয়া যায়নি। নেপালি কর্মকর্তারা বলছেন, উড়োজাহাজটির ৪৯ আরোহী নিহত হয়েছেন। তবে নিহত অধিকাংশের সবার নাম-পরিচয় এখনও জানা যায়নি। বিধ্বস্ত বিমানটি আগুন ধরে যাওয়ায় অনেকের লাশ পুড়ে গেছে বলে নেপালি কর্মকর্তারা জানান।



আর্কাইভ

PropellerAds

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)