সদ্যপ্রাপ্ত
রাজশাহী, সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮, ১০ আষাঢ় ১৪২৫
52 somachar
সোমবার ● ২৮ মে ২০১৮
প্রথম পাতা » এক্সক্লুসিভ » রামোসের শাস্তি চেয়ে দেড় লাখের বেশি ভক্তের স্বাক্ষর
প্রথম পাতা » এক্সক্লুসিভ » রামোসের শাস্তি চেয়ে দেড় লাখের বেশি ভক্তের স্বাক্ষর
৩৬ বার পঠিত
সোমবার ● ২৮ মে ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

রামোসের শাস্তি চেয়ে দেড় লাখের বেশি ভক্তের স্বাক্ষর

অনলাইন প্রতিবেদক, রাজশাহী: রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার সের্গিও রামোস লিভারপুলের তারকা মোহাম্মদ সালাহকে ইচ্ছাকৃতভাবে ট্যকাল করেছেন। সালাহ ভক্তরা অন্তত এমনটাই মনে করছেন। আর এজন্য তারা স্পেন তারকার শাস্তি দাবি করেছেন। তাও টুইটার কিংবা কোন বিবৃতি দিয়ে নয়। গণস্বাক্ষর করেছেন। আর রামোসের শাস্তির দাবিতে এরইমধ্যে এক লাখ ৬০ হাজার ভক্ত স্বাক্ষর করেছেন।লিভারপুল ভক্ত এবং ফুটবল ভক্তরা এই স্বাক্ষর কর্মসূচির আয়োজন করেছেন। প্রাথমিকভাবে তাদের লক্ষ্য ছিল দেড় লাখ স্বাক্ষর সংগ্রহ করা। কিন্তু মিসরের ফুটবল রাজা খ্যাত সালাহের ভক্ত সংখ্যা এতো বেশি যে তা অল্প সময়ের মধ্যে দেড় লাখ ছাড়িয়ে গেছে। তাদের মতামত হলো রামোস যেভাবে সালাহকে ট্যাকল করে ইনজুরিতে ফেলেছেন তাতে তার শাস্তি হওয়া উচিত।

রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে লিভারপুলের চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালের ৩০ মিনিটের মাথায় ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়েন সালাহ। রামোস যেভাবে সালাহের হাত নিজের হাতের মধ্যে নিয়ে শরীরের সঙ্গে জাপটে ধরে ফেলে দিয়ছেন তা শাস্তি যোগ্য বলে মনে করেন স্বাক্ষরকারীরা।

ইনজুরি নিয়ে মোহাম্মদ সালাহ কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছাড়েন। চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালটাকে তিনি পরিপূর্ণতা দিতে পারেননি। এছাড়া তার বিশ্বকাপে যাওয়া শঙ্কায় পড়ে গেছে। তার ইনজুরির অবস্থা দেখে ক্লাবের পক্ষে থেকে জানানো হয়েছে, তার অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। সম্ভবত সে বিশ্বকাপ মিস করছে।

এছাড়া সালাহ ভক্তরা রামোসকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ সমালোচনা করেছেন। এক ফুটবল ভক্ত রামোসকে উদ্দেশ্যে করে টুইট করেছেন, ‘রিয়ালের নোংরা খেলা। সালাহ মাঠ ছেড়ে যাওয়ার সময় হাসলেন রামোস!’ সানাইসি নামে আরেকজন টুইটারে লিখেছেন, সালাহ কান্না নিয়ে মাঠ ছাড়ছেন আর রামোস হাসছেন!’ অন্য একজন লিখেছেন, ‘রামোস ফুটবলের খলনায়ক।’ নাইম্যানের টুইট হলো, ‘যতই ভাবছি ততই রামোসের প্রতি ঘৃণা আসছে।’



আর্কাইভ

PropellerAds

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)