সদ্যপ্রাপ্ত
রাজশাহী, শনিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৮, ৩ ভাদ্র ১৪২৫
52 somachar
রবিবার ● ৬ মে ২০১৮
প্রথম পাতা » লাইফ স্টাইল » গরমে থাকুক পুদিনাপাতা
প্রথম পাতা » লাইফ স্টাইল » গরমে থাকুক পুদিনাপাতা
৭৭ বার পঠিত
রবিবার ● ৬ মে ২০১৮
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

গরমে থাকুক পুদিনাপাতা

হিমুদ্রিতা স্বপ্ন, নিজস্ব প্রতিবেদক: চারদিকে প্রচন্ড গরম আর খরতাপ। ক্লান্তিতে মানুষ হারাচ্ছে কাজ করার শক্তি। এ ক্লান্তি ও অবসাদ দূর করবে পুদিনাপাতা। ইংরেজিতে যার নাম মিন্ট। সালাদের বাটিতে এটি ভীষণ পরিচিত নাম। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও ভিটামিন ‘এ’-এর মাধ্যমে পরিপূর্ণ পুদিনাপাতা। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এমন একটি উপকরণ, যা অতিরিক্ত গরমে ত্বকের যে ক্ষতি হয়, তা দূর করে। গরমের ঘাম জমে যে ঠান্ডা লেগে, যায় তা প্রতিরোধ করে। বয়সের ভারে বৃদ্ধ হওয়া ত্বক, চুলকে করে তোলে তরুণ ও সজীব। অতিরিক্ত গরমে ছোট-বড় সবারই খাবারে বদহজম বা ফুড পয়জনিংয়ের সমস্যা দেখা যায়। এ পাতা পেটের অভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা কমিয়ে খাবার হজমে সাহায্য করে। বাতাস, নোংরা খাবার, নোংরা পরিবেশের মাধ্যমে বংশবিস্তার ঘটে কৃমির। কৃমিনাশক হিসেবে কাজ করে পুদিনাপাতা। অতিরিক্ত জ্বর, বড় কোনো অপারেশন, ডায়রিয়া, দীর্ঘদিন ধরে বমির পর বেশিরভাগ রোগীর মুখের স্বাদ নষ্ট হয়ে যায়। পুদিনাপাতা এ ক্ষেত্রে ফিরিয়ে আনবে মুখের স্বাদ। পিষে, ধনে পাতার মতো তরকারিতে ছিটিয়ে বা কাঁচা সালাদের সঙ্গে খাওয়া যায়। মাছ, মাংস বা সবজির খাবারে এ পাতা আনে বাড়তি স্বাদ এবং দেহের জন্য প্রয়োজনীয় লবণ সরবরাহ করে রক্তের মধ্যে। দেহের জন্য ক্ষতিকর অণুজীবগুলো ধ্বংস করে। পুদিনাপাতা রান্নার চেয়ে কাঁচা খাওয়া ভালো। এতে পুষ্টিগুণ বজায় থাকে বেশি। সর্দি, হাঁচি, কাশি দূর করতেও এ পাতার ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। পুদিনাপাতা, তুলসীপাতা, কাঁচা আদা, মধু মিশিয়ে খেলে ঠান্ডা লাগা ভালো হয়।



আর্কাইভ

PropellerAds

পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)